রবিবার; ১৬ জুন, ২০২৪ খ্রি. Dashboard

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন দিন
সর্বশেষ :
হু হু করে বাড়ছে তিস্তার পানি, নদীপাড়ে আতঙ্ক কুড়িগ্রামের উলিপুরে নিরাপত্তা নিশ্চিতে ৩২টি সিসি ক্যামেরা বসালো পুলিশ ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে কুড়িগ্রামে ব্যস্ত সময় পার করছেন কামারেরা কুড়িগ্রামে বিভিন্ন পশুর হাটে জেলা পুলিশের নিরাপত্তা জোরদার কুড়িগ্রামের চর রাজিবপুরে সরকারি বিতরণকৃত চাল জব্দ
16 December

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

কালীগঞ্জে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে ল্যাব অ্যাসিস্ট্যান্ট দারা ছাত্রী ধর্ষণের শিকার

প্রকাশিত: বুধবার; ২৩ মার্চ, ২০২২ খ্রি. - ০১:৫২ এ.এম. | দেখেছেন: ২৪৮৯ জন।

কালীগঞ্জে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে ল্যাব অ্যাসিস্ট্যান্ট দারা ছাত্রী ধর্ষণের শিকার

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

স্টাফ রিপোটার:

 

 

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী এস.সি দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের নরন্নবী নুরু নামে এক লম্পট শিক্ষকের বিরুদ্ধে সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অপমান সইতে না পেয়ে বিষ পানে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেন ওই ছাত্রী।

 


মঙ্গলবার (২২ মার্চ) রাত ৯ টার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গোলাম রসূল। এর আগে ২ মার্চ দুপুর দুইটার দিকে ওই উপজেলার মুশরত মদাতী (৬ নম্বর ওর্য়াডের) মোকছুদার রহমানের বাড়িতে এ ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে। বিষয়টি কাউকে জানালে ঐ ছাত্রীকে প্রাণনাশের হুমকি দেন ওই শিক্ষক নুরন্নবী নুরু। ফলে নিরুপায় হয়ে ২০ মার্চ সকাল বিষ পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ছাত্রীটি। বর্তমানে সে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে।

 

অভিযুক্ত শিক্ষক ওই উপজেলার মুশরত মদাতী (৬ নম্বর ওর্য়াড) এর আইয়ুব আলীর ছেলে। সে ভোটমারী এস.সি দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ল্যাব অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে কর্মরত রয়েছেন এবং এলাকায় বিভিন্ন ছাত্রছাত্রীদের প্রাইভেট পড়ান বলে জানা গেছে। ছাত্রীটিও একই এলাকার বাসিন্দা।  

 

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ঐ এলাকার মকছুদার রহমানের বাড়িতে বিভিন্ন ছাত্র-ছাত্রীকে প্রাইভেট পড়ান শিক্ষক নুরুন্নবী নুরু। ছাত্রীটিও সেখানে তার কাছে প্রাইভেট পড়তো। এমতাবস্থায় ২ মার্চ দুপুর দুইটার দিকে ওই ছাত্রীকে সাজেশন দেওয়ার কথা বলে ডাকে নুরুন্নবী। ছাত্রীটি সাজেশনের জন্য গেলে বাড়িতে আর কেউ না থাকার সুযোগে লম্পট শিক্ষক তাকে একটি রুমের ভেতর নিয়ে ঘরের দরজা বন্ধ করে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। এ সময় ছাত্রীটি চিৎকার করতে চাইলে তার মূখ চেপে ধরে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। ধর্ষণের শিকার হয়ে মেয়েটি কাঁদতে কাঁদতে বাসায় গিয়ে সহপাঠীসহ বিষয়টি তার মা-বাবাকে জানায়। সুষ্ঠু বিচারের জন্য ঐ ছাত্রীর বাবা বিষয়টি স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে জানালে এতে ক্ষিপ্ত হয় ওই লম্পট শিক্ষক নুরন্নবী নুরু।
এনিয়ে এলাকায় কানাঘুষা শুরু হতে থাকলে গত ২০ মার্চ সকাল দশটার দিকে ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে মেয়েটিকে উঠিয়ে নিয়ে গিয়ে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে চলে যান ঐ শিক্ষক। ফলে ছাত্রীটি লোক লজ্জার ভয়ে ঐদিন সকাল সাড়ে এগারোটার দিকে বাড়িতে বিষ পান করে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করে। এ দৃশ্য দেখে তার পরিবারের লোকজন চিল্লাচিল্লি করলে স্থানীয়রা এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করান। মেয়েটি বর্তমানে ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। যার রেজি নং ২৭৮২/১৮ বেট নং ২০।

 

এবিষয়ে অভিযুক্ত ঐ শিক্ষক নুরন্নবী নুরু বক্তব্যের জন্য তার কর্মরত স্কুল ও বাড়িতে গিয়েও তার দেখা পাওয়া যায়নি। এরপর তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিলেও তা সুইচ অফ পাওয়া যায়।

 

এবিষয়ে ভোটমারী এস.সি দ্বী-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুর ইসলামের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি বসে মিমাংসা করার চেষ্টা করছেন বলে জানান। এছাড়াও তিনি এ নিয়ে লেখালেখি না করার জন্য অনুরোধ করেন।

 

জেলা শিক্ষা অফিসার আবুল কালাম আজাদ বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। অভিযোগ পেলে তদন্ত পুর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এছাড়াও তিনি বলেন, কেউ অপরাধ করলে তাকে শাস্তি পেতেই হবে।

 

কালীগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) গোলাম রসুল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এবিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়ে আমি মেডিকেলে গিয়ে কয়েকবার ছাত্রীটির সাথে কথা বলে তার খোজখবর নিয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন