রবিবার; ১৬ জুন, ২০২৪ খ্রি. Dashboard

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন দিন
সর্বশেষ :
হু হু করে বাড়ছে তিস্তার পানি, নদীপাড়ে আতঙ্ক কুড়িগ্রামের উলিপুরে নিরাপত্তা নিশ্চিতে ৩২টি সিসি ক্যামেরা বসালো পুলিশ ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে কুড়িগ্রামে ব্যস্ত সময় পার করছেন কামারেরা কুড়িগ্রামে বিভিন্ন পশুর হাটে জেলা পুলিশের নিরাপত্তা জোরদার কুড়িগ্রামের চর রাজিবপুরে সরকারি বিতরণকৃত চাল জব্দ
16 December

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

পঞ্চগড় বোদা থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে জিনের বাদশা আটক

প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার; ৬ জুন, ২০২৪ খ্রি. - ০৫:২৭ পি.এম. | দেখেছেন: ২৮ জন।

পঞ্চগড় বোদা থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে জিনের বাদশা আটক

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এ,কে,এম আসাদুজ্জামান রানা

পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি :

 

 

 

পঞ্চগড় জেলার সম্মানিত পুলিশ সুপার জনাব এস এম সিরাজুল হুদা পিপিএম-বার, সহকারী পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) জনাব রুনা লায়লা মহোদয়গনের দিক-নির্দেশনায় বোদা থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃ মোজাম্মেল হক পিপিএম এর নেতৃত্বে বোদা থানার এসআই মোঃ আব্দুস ছালাম ও সঙ্গীয় ফোর্সের সমন্বয়ে গঠিত আভিযানিক দল তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার ও পুলিশি অভিযান পরিচালনা করে ০৪/০৬/২০২৪ খ্রিঃ ২১.৩৫ ঘটিকার সময় বোদা থানাধীন কাজলদিঘী কালিয়াগঞ্জ বাজার এলাকা হতে কুখ্যাত জিনের বাদশা মোঃ মিলন ইসলাম (৪৬) পিতা-মৃত আব্দুল আজিজ, সাং-উৎকুড়া, থানা-বোদা, জেলা-পঞ্চগড়কে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ মিলন ইসলাম জিনের বাদশা তথা প্রতারক চক্রের একজন সক্রিয় সদস্য। আসামী মোঃ মিলন ইসলামসহ প্রতারক চক্রের অন্যান্য সদস্যগণ দীর্ঘদিন যাবৎ মানুষকে সিঙ্গাপুর, ইউএসএ এর ডলারসহ অন্যান্য দেশের মূদ্রা, হুনুমানের পয়সা, নকল স্বর্ণের পুতুল, নকল কষ্টি পাথরের মূর্তি, তক্ষক সহ প্রভৃতি জিনিস দেখিয়ে মানুষের নিকট হতে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসতেছিল এবং আত্মসাৎকৃত উক্ত টাকা দিয়ে জায়গা জমি, বিশাল অট্টালিকা নির্মান করে আসতেছিল।

অভিযোগকারী মোঃ মহসিন আলী রুবেল ২০২৪ সালের অনুষ্ঠিত ২য় ধাপে ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে হেলিকাপ্টার প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী প্রচারনা শুরু করেন। এমতাবস্থায় গত ২৩/০৪/২০২৪ খ্রিঃ বিকাল বেলা আসামী মোঃ মিলনসহ প্রতারক চক্রের অন্যান্য সদস্যগণ মোবাইল ফোনে বিভিন্ন কৌশলে বাদীর ব্যক্তিগত গাড়ীর ড্রাইভার মোঃ বুলু ইসলামকে হিপনোটাইজ করেন এবং ২১ মে ২০২৪ তারিখের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বাদীর পক্ষে ভোট কেন্দ্রে কথিত জিনের বাদশা পাঠিয়য়ে বাদীকে বিজয়ী করবে মর্মে প্রলোভন দেখিয়ে বিশ্বাস স্থাপন করেন। 

পরবর্তীতে ধৃত আসামী মোঃ মিলনসহ প্রতারক চক্রের অন্যান্য সদস্যগণ বাদীর ব্যক্তিগত ড্রাইভারের মাধ্যমে বাদীর সাথে যোগাযোগ করে বিভিন্ন কৌশলে অভিনব কায়দায় বাদীর মস্তিষ্ক হিপনোটাইজ করে কথিত জ্বিনের বাদশা ভোট কেন্দ্রে পাঠিয়ে বাদীকে নির্বাচনে বিজয়ী করবে মর্মে আশ্বস্ত করলে বাদী প্রতারক চক্রের কথা সহজ সরল মনে বিশ্বাস করেন এবং প্রতারক চক্রের সদস্যগণ বাদীর মস্তিস্ক হিপনোটাইজ করার ফলে বাদী বিবেক, বুদ্ধি সহ হিতাহিত জ্ঞান হ্রাস পাওয়ায় বাদী ধৃত আসামী মোঃ মিলন ইসলামের কথামতো চলাচল শুরু করেন।

এরই সুযোগে গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ মিলন ইসলামসহ প্রতারক চক্রের অন্যান্য সদস্যগণ পরস্পর যোগসাজসে জিনের বাদশা সাজিয়ে গত- ২৩/০৪/২০২৪ খ্রিঃ বাদী তার ব্যক্তিগত ড্রাইভারকে নিয়া ধৃত আসামী মোঃ মিলন ইসলাম বসতবাড়ীতে আসলে ধৃত আসামী সহ অন্যান্য আসামীরা বাদী ও বাদীর ড্রাইভারের মস্তিষ্ক হিপনোটাইজ করে বাদীর নিকট হতে বাদীকে নির্বাচনে বিজয়ী করানোর জন্য সর্বমোট ১৫,০০,০০০/-(পনের লক্ষ) টাকা হাতিয়ে নেন।

পরবর্তীতে নির্বাচনের দিন ভোট গণনা শেষে বাদী ৬ষ্ঠ স্থানের অধিকার করায় প্রতারক চক্রের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টায় র্ব্যথ হলে গত-২২/০৫/২০২৪ খ্রিঃ সন্ধ্যা অনুমান ১৯.০০/১৯.৩০ ঘটিকার সময় বাদী ব্যক্তিগত ড্রাইভার বুলু ইসলামসহ বাদীর পরিচিত লোকজনদের নিয়ে ধৃত আসামী মোঃ মিলন ইসলাম এর বাড়ীতে যান এবং বাদী নির্বাচনে বিজয়ী না হওয়ায় প্রতারক চক্রের নিকট প্রদানকৃত টাকা ফেরত চাইলে তারা বাদীকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করে।

পরবর্তীতে বাদী থানায় উপস্থিত হয়ে বোদা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগকারীর অভিযোগের ভিত্তিতে বোদা থানার মামলা নং-০৩, তারিখ- ০৪/০৬/২০২৪, ধারা- ৩২৮/৪০৬/৪২০/৫০৬/৩৪ পেনাল কোড-১৮৬০ রুজু হয়। বোদা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোজাম্মেল হক পিপিএম এর দিকনির্দেশনায় একটি বিশেষ অভিযানিক দল তথ্য প্রযুক্তি ও সোসের মাধ্যমে অভিযান পরিচালনা করে গত-০৪/০৬/২০২৪ তারিখ বিকাল ২১.৩৫ ঘটিকার সময় বোদা থানাধীন কাজলদিঘী কালিয়াগঞ্জ বাজার এলাকা হতে জিনের বাদশা আসামী মোঃ মিলন ইসলাম (৪৬) পিতা-মৃত আব্দুল আজিজ, সাং-উৎকুড়া, থানা-বোদা, জেলা-পঞ্চগড়কে গ্রেফতার করা হয়।

প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য মোঃ মিলন ইসলামকে জিজ্ঞাসাবাদ করিলে সে প্রতারণার কথা স্বীকার করেন। আসামির দেয়া তথ্য মোতাবেক আসামি মিলনের বসত বাড়ি তল্লাশি করে হনুমানি পয়সা, নগদ ডলার জব্দ করা হয়েছে। আসামিকে যথা সময়ে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ্দ করা হয়েছে। প্রতরনার কাজে ব্যবহৃত অন্যান্য সিঙ্গাপুর, ইউএসএ এর ডলারসহ অন্যান্য দেশের মূদ্রা, হুনুমানের পয়সা, নকল স্বর্ণের পুতুল, নকল কষ্টি পাথরের মূর্তি উদ্ধারের জন্য জিজ্ঞাসাদের নিমিত্তে আসামির ০৫(পাঁচ) দিনের রিমান্ডের আবেদন দাখিল করা হয়েছে।

অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারের চেস্টা অব্যাহত আছে। উদ্ধারকার ও গ্রেফতারকারী অফিসারঃ পুলিশ পরিদর্শক জনাব মোঃ মোজাম্মেল হক পিপিএম, এসআই মোঃ আব্দু ছালাম ছালাম ও সঙ্গীয় ফোর্স, বোদা থানা, পঞ্চগড়।

 

 

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন