রবিবার; ১৬ জুন, ২০২৪ খ্রি. Dashboard

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন দিন
সর্বশেষ :
হু হু করে বাড়ছে তিস্তার পানি, নদীপাড়ে আতঙ্ক কুড়িগ্রামের উলিপুরে নিরাপত্তা নিশ্চিতে ৩২টি সিসি ক্যামেরা বসালো পুলিশ ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে কুড়িগ্রামে ব্যস্ত সময় পার করছেন কামারেরা কুড়িগ্রামে বিভিন্ন পশুর হাটে জেলা পুলিশের নিরাপত্তা জোরদার কুড়িগ্রামের চর রাজিবপুরে সরকারি বিতরণকৃত চাল জব্দ
16 December

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

রংপুরে নাশকতার মামলায় কারাগারে দুই যুবদল নেতা

প্রকাশিত: মঙ্গলবার; ২৩ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রি. - ০৯:৪৫ পি.এম. | দেখেছেন: ৫৭ জন।

রংপুরে নাশকতার মামলায় কারাগারে দুই যুবদল নেতা

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

 

রংপুরে নাশকতার মামলায় মহানগর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক মুহাম্মদ জহির আলম নয়ন ও জেলা যুবদলের সহসভাপতি তারেক হাসানকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

 

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) সকালে রংপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-১ এ তারা আত্মসমর্পণ করেন। শুনানি শেষে বিচারক কৃষ্ণ কান্ত রায় তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

২০১৩ সালে হরতালে নাশকতা ও ককটেলসহ বোমা রাখার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ২০২৩ সালের ২০ নভেম্বর

রংপুর বিএনপি ও যুবদলের পাঁচ নেতাকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। একইসঙ্গে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। দণ্ডপ্রাপ্ত পাঁচ নেতার মধ্যে জহির আলম নয়ন ও তারেক হাসান মঙ্গলবার স্বেচ্ছায় আদালতে হাজির হয়ে আত্মসমর্পণ করেন।


দণ্ডপ্রাপ্তরা অন্যরা হলেন, রংপুর মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব মাহফুজ উন নবী ডন, জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আনিছুর রহমান লাকু ও যুবদল নেতা আরিফ মিয়া। এরমধ্যে মাহফুজ উন নবী ডন গত বছরের ২৯ অক্টোবর অবরোধের সময় নগরীর গ্রান্ড হোটেল মোড়ের দলীয় কার্যালয় থেকে গ্রেফতার হন।

পরে রায় ঘোষণার দিন আদালতে তাকে হাজির করা হয়। দীর্ঘদিন কারাভোগের পর চলতি বছরের ৩ মার্চ জামিনে মুক্তি পান ডন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৩ সালের ১৯ মে যুবদল-স্বেচ্ছাসেবক দলের হরতালের আগের রাতে রংপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট মাঠে অগ্নিসংযোগের জন্য প্রস্তুতি নেওয়ার সময় পুলিশ আসামিদের হাতেনাতে আটক করে। এ সময় তাদের কাছে থেকে ৫৬টি চকলেট বোমাসহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানার তৎকালীন উপপরিদর্শক (এসআই) চন্দন কুমার চক্রবর্তী বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ২০১৪ সালের ২৬ আগস্ট সাতজনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

 

মামলার বিচার চলাকালে দুই আসামি রইছ আহামেদ ও ঝন্টু মারা যান।আদালতে উপস্থিত আসামিপক্ষের আইনজীবী ও রংপুর মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মাহফুজ উন নবী ডন বলেন, একটি সাজানো মিথ্যা মামলা করে এ রায় দেওয়া হয়েছে। আমরা এ রায়ের তীব্র নিন্দা জানাই।

 

 

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন