রবিবার; ১৬ জুন, ২০২৪ খ্রি. Dashboard

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন দিন
সর্বশেষ :
হু হু করে বাড়ছে তিস্তার পানি, নদীপাড়ে আতঙ্ক কুড়িগ্রামের উলিপুরে নিরাপত্তা নিশ্চিতে ৩২টি সিসি ক্যামেরা বসালো পুলিশ ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে কুড়িগ্রামে ব্যস্ত সময় পার করছেন কামারেরা কুড়িগ্রামে বিভিন্ন পশুর হাটে জেলা পুলিশের নিরাপত্তা জোরদার কুড়িগ্রামের চর রাজিবপুরে সরকারি বিতরণকৃত চাল জব্দ
16 December

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

নৌপথে পাচারকালে ভেজাল কীটনাশকসহ ভর্তুকির সার আটক

প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার; ১২ মে, ২০২২ খ্রি. - ১০:০২ পি.এম. | দেখেছেন: ৪৬৭ জন।

নৌপথে পাচারকালে ভেজাল কীটনাশকসহ ভর্তুকির সার আটক

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

পিবিএ :

 

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে ভেজাল কীটনাশকসহ সরকারের ভর্তুকি দেওয়া সারের একটি চালান কালোবাজারে বিক্রির জন্য সরিয়ে নেওয়ার সময় আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে ট্রলারসহ ওই চালানটি আটক করা হয়। তাহিরপুর থানার ওসি মো. আব্দুল লতিফ তরফদার জানান, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে রক্তি নদীর নৌপথে কিশোরগঞ্জের ভৈরবমুখী ইঞ্জিনচালিত ট্রলারটি আটক করা হয়। সুনামগঞ্জ জেলা পুলিশের দায়িত্বশীল সুত্র জানায়, পুলিশের নিজস্ব গোয়েন্দা সুত্রে প্রাপ্ত তথ্যের ভিক্তিত্বে তাহিরপুর থানার এসআই মো. নাজমুল হকের নেতৃত্বে পুলিশের একটি চৌকস টিম রক্তি নদীর নৌপথে ট্রলারটি আটক করেন।

এরপর জনসম্মুখে ওই ট্রলারে তল্লাশি চালিয়ে একাধিক কার্টুনভর্তি ভেজাল কীটনাশকের বোতল ও ভর্তুকির ২৭১ বস্তা ডিএপি (দানাদার) সার জব্দ করা হয়। এ সময় ট্রলারের মালিক, মাঝি সুকানিসহ তিনজনকে আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক ব্যক্তিরা পুলিশকে জানায়, কিশোরগঞ্জের ভৈরববাজারে ডিএপি সার ও কীটনাশকের চালান পৌঁছে দিতে তাহিরপুরের বিসিআইসি নিয়োজিত রাবেয়া এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী নাগরপুর গ্রামের বাসিন্দা ডিলার হাফিজুর রহমান ট্রলারটি ভাড়া করেন।

উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের উপকারভোগগী কৃষকরা অভিযোগ করেন,সরকার ভর্তুডশ দেওয়ায় ডিলারের নিকট থেকে উপকারভোগী কৃষকরা ৮’শ টাকায় প্রতিবস্তা ডিএপি সার প্রাপ্তির কথা থাকলেও হাফিজুর চক্র এলাকায় কৃত্রিম সংকট তৈরী করে নানা কৌশলে ডিএপি সার মজুদ করে প্রতিবস্তা সার ১৪’শ টাকা চড়া মুল্যে বিক্রির জন্য রাতের আঁধারে ট্রলারযোগে সার ও ভেজাল কীটনাশক সরিয়ে নিচ্ছিলেন। স্থানীয় উপকারভোগী কৃষকদের অভিযোগ,ডিলার হাফিজুর কৃত্রিম সংকট তৈরী করে বরাবরই কালোবাজারে সার ও বীজের পাশাপাশী ভেজাল কীটনাশক বিক্রির ব্যাপারে বেশ কয়েকবার লিখিত অভিযোগ করার পরও উপজেলা কৃষি অফিসার অদৃশ্য কারনে নিরব ভুমিকা পালন করে আসছেন।

তাহিরপুর উপজেলা সার বীজ মনিটরিং কমিটির সদস্য সচিব ও উপজেলা কৃষি অফিসার মো. হাসান উ-দৌলার নিকট এ বিষয়ে জানতে চেয়ে কয়েকবার বৃহস্পতিবার রাতে ও শুক্রবার সকালে একাধিকবার মুঠোফোনে কল করা হলেও তিনি ফোন কল রিসিভ করেননি। এ বিষয়ে উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রহিছ উদ্দিনের ছেলে ও বিসিআইসি নিয়োজিত ডিলার হাফিজুর রহমান বলেন, কিশোরগঞ্জের ভৈরববাজারে অপর এক ডিলারের নিকট ২৭১ বস্তা ডিএপি সার ফেরত পাঠাতে গিয়ে পুলিশ সারের চালান আটক করেছে। সারের সঙ্গে ভেজাল কীটনাশক আটকের ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি কোনো রকম সদুত্তর দিতে পারেননি।

তাহিরপুর উপজেলা সার বীজ মনিটরিং কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. রায়হান কবির বলেন, নৌপথে কালো বাজারে পাচারকালে সরকারের ভর্তুকির সার ও ভেজাল কীটনাশক আটকের খবর পেয়ে আইনি ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন